পোস্টগুলি

আগস্ট, ২০১৯ থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

প্রাণী প্রেমের নামে আমাদের হত্যা করা হয়েছে - মলি (২০১৭ - ১১ জুন, ২০২০) এবং হুলো

ছবি
গত মে মাসে (২০২০) এর শেষের দিক থেকে কি মানসিক চাপের মধ্য দিয়ে আমাকে যেতে হয়েছে, এবং এখনও হচ্ছে... ফেব্রুয়ারি মাসে আমি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েছিলাম। সেই সময়ই আমাদের বাসায় যিনি কাজ করতেন, তার ছেলের একটি সমস্যার কারণে তাকে দেশে যেতে হয়। এরপর লকডাউন এর কারণে তিনি আর ফিরে আসতে পারছিলেন না। আমার মা সিবিজি রুগী। আমার বড় বোন লন্ডনে থাকেন। তিনি সিদ্ধান্ত নিলেন এই অবস্থায় মা আমার খালার বাসায় থাকলেই ভালো হয়।   আমার দুটি পোষা বেড়ালের মধ্যে হুলো এবং অপরটির নাম ছিলো মলি। একা বাসায়  অসুস্থ অবস্থায় আমি ওদের দেখাশোনা করতে পারছিলাম না। করনা কালীন একা বাড়িতে অসুস্থা অবস্থায় আমার প্রচন্ড প্যানিক ও হচ্ছিলো। আমি মোটামুটি নিশ্চিত ছিলাম যে আমাদের বাসায় যিনি কাজ করতেন, তিনি আর জীবিত ফিরে আসবেন না। রাস্তায় রাস্তায় লাশ পড়ে থাকবে, দুর্ভিক্ষ হবে, ব্যাংক দেউলিয়া হয়ে যাবে, মানুষ তখন ঘরে ঘরে ধুকে ডাকাতি করবে। এমন একটা ধারণা অনেকেরই হয়েছিলো। প্যানিক থেকে প্রায় আমার নাক থেকে রক্ত পড়ত। দুশ্চিন্তা থেকে পেটে ব্যথা প্রচন্ড বেড়ে গিয়েছিলো। বেশী টেনশান হতো হুলো মলিকে নিয়ে। আমি ওদের ঠিক মতন দেখাশোনা করতে পারছিলাম না, ওরা যদ

নেচার ফটোগ্রাফি সেপ্টেমবার আসাইনমেন্ট ১ । Nature photography September Assignment-1

ছবি
এবারের অ্যাসাইনমেন্ট হচ্ছে নেচার ফটোগ্রাফি (প্রাকৃতিক ফটোগ্রাফি) এই শর্তাবলী গুলো প্রযোজ্য এই অ্যাসাইনমেন্ট এর জন্যে - ছবিতে কোন মানুষ বা মানুষের সৃষ্টি করা কিছু থাকতে পারবে না। ছবিতে দিগন্ত থাকলে, তাকে " রুল অব হরাইজন " মানতে হবে।    " রুল অব থার্ডস " প্রযোজ্য হলে, তা মানতে হবে। “ রুল অব থার্ডস ” বা “ রুল অব হরাইজন ”, যে কোন একটি, যেটি প্রযোজ্য আপনার ছবির ক্ষেত্রে, তা মানতে হবে। যদি দুটোই প্রযোজ্য হয়ে থেকে আপনার ছবির ক্ষেত্রে, তাহলে দু'টি রুলই মানতে হবে।  যদি “ রুল অব থার্ডস ” বা “ হরাইজন রুল ” - কোনটিই আপনার ছবির জন্যে প্রযোজ্য না হয়ে থাকে, তবে ছবিটি এই অ্যাসাইনমেন্ট এর জন্যে প্রযোজ্য হবে না।  আপনার ছবিতে যদি দিগন্ত থাকে, তা কোন এক দিকে হেলে গেলে সেই ছবিটি অ্যাপ্রুভ করা হবে না। এখানে দেখুন কেন দিগন্ত রেখাটিকে সোজা রাখা প্রয়োজন ।  ছবির ক্যাপশানে কি কি থাকতে হবে- আপনার আইডি। আইডি না থাকলে এখানে এনরোল করে নেবেন একটি আইডির জন্যে ছবির একটি টাইটেল “ রুল অব থার্ডস ” বা “ হরাইজন রুল ”, কোনটি আপনার ছবিতে মানা হয়েছে। যদি দুটোই মানা হয়ে থাকে, তবে তা উ

পিক্সেলেন্ট ফটোগ্রাফি আগস্ট ২০১৯ মুখচ্ছবির বিজয়ী । Winner of August 2019, Portrait Contest

ছবি
 

পিক্সেলেন্ট ফটোগ্রাফি অভিযোগ, মতামত এবং ফিডব্যাক ফর্ম । Pixcellent Photography complaint, suggestion and feedback form

ছবি

পিক্সেলেন্ট ফটোগ্রাফি অ্যাসাইনমেন্ট#২ - মুখচ্ছবি | Assignment#2 - Portrait

ছবি
- Prepared by Lopa Khan Hanif

রুল অব থার্ডস | Rule of Thirds

ছবি
প্রথম প্রথম যে কোনও ফটোগ্রাফারের প্রবণতা হয়ে থাকে ছবির সাবজেক্টকে ছবির মাঝখানে বা কেন্দ্রে রাখা। এটা হয়তো বা কারণ আপনি যখনি কাওকে দেখবেন, তাকে আপনি ছবির মাঝখানে রেখে ফ্রেইম করবেন।  তবে ফটোগ্রাফি করার ক্ষেত্রে কি এটা ভাল প্র্যাকটিস? আসলে না।  এটি সব চেয়ে বড় ত্রুটি যা প্রায় করা হয়ে থাকে যখন একটি সাবজেক্ট কে ঘিরে ছবি তোলা হয়ে থাকে, যেমন একজন ব্যক্তি, পাখি, প্রানি, ফুল, ইত্যাদি। তবে একটি কেন্দ্রিক সাবজেক্ট একটি বোরিং ছবি হয়ে থাকে। কেন? কারণ যখন কেও ছবিটি দেখবে, তার দেখার আর কিছু থাকে না। এটি বেশী "straight forward" হয়ে গিয়ে থাকে। চোখের আর কোন মুভমেন্ট এর প্রয়োজন হয় না। উদাহারন সরূপ নীচের পাখির ছবিটি দেখুন।  পাখিটি একদম ছবির মাঝখানে, এবং পাখির দু'পাশে সমান ভাবে খালি স্থান ভাগ করা। ফলে ছবিটি একটি স্ট্যাটিক ছবি। এই সমস্যাটি খুব সহজেই সমাধান কড়া যায় ফটোগ্রাফির সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কম্পসিশান টেকনিক দিয়ে, যেটাকে বলা হয়ে থাকে "রুল অব থার্ডস"। এই রুল্টি হচ্ছে একটি গাইডলাইন যা আপনাকে সাহায্য করবে সাবজেক্ট কে ছবির একদম কেন্দ্র সরিয়ে আনতে এমন ভাবে যেন আপনার ছব

Pixcellent Photography Enrollment Form

ছবি

একটি ছবির বিশ্লেষণ

ছবি
আজ পিক্সেলেন্ট ফেইসবুক গ্রুপে একজন সদস্য, Mohammad Raihanul Kader , নীচের প্রজাপতির এই চমৎকার ছবিটি জমা  দিয়েছেন। আমাকে Mohammad Raihanul Kader অনুরধ করলেন, এই ছবিটি নিয়ে আমার মতামত দিতে, তাই আমি আমার লম্বা বিশ্লেষণ এখানে দিচ্ছি। আমাদের পিক্সেলেন্ট ফটোগ্রাফি গ্রুপে আবার আমরা সব সদস্যরা গঠনমূলক সমালচনাকে উৎসাহ দিয়ে থাকি। তাই এই গ্রুপে সবাই  তাদের ছবির গঠনমূলক সমালচনা পেতেই ছবি জমা দিয়ে থাকেন। কারণ এই গ্রুপে আমরা সবাই শিখছি।এবং শেখার কোন শেষ নেই। প্রথমেই বলি ছবির সবচেয়ে সুন্দর জিনিষটি কি হয়েছে। তা হচ্ছে, ছবির সামনের অংশের ব্লার ইফেক্টটি। আমরা সবাই ব্যাকগ্রাউন্ড ব্লার সম্পর্কে জানি, কিন্তু ছবির সামনে কিভাবে ব্লার ব্লার ইফেক্ট দেয়া যায়, তা আরেক সময় লিখব। বা  Mohammad Raihanul Kader লিখে দিলে আমি এটা এই লেখায় বসিয়ে দিব।  বেসিকালি অ্যাপারচার এর মান কমিয়ে সাবজেক্ট এর উপর ফোকাস করলেই, সাজেক্ট ছাড়া আর সব কিছু ব্লার হয়ে যায়।  এই ছবিতে ব্যাকগ্রাউন্ড ব্লার এবং ফোরগ্রাউন্ড ব্লার, দুটোই আছে। ছবির সামনের দিকের অংশটিকে ঝাপসা করলে তাকে বলা হয়ে থাকে Foreground blur। এই Foreground

Pixcellent Photography Assessment Sheet